আমবাগানের নিচে ১২০০ বছর আগের বৌদ্ধবিহার I ঢাকার চিঠি 

২২ জানুয়ারি ২০২২ খ্রিস্টাব্দে প্রত্নতত্ত্ব অধিদফতর, খুলনা ও বরিশাল বিভাগীয় অঞ্চল কার্যালয়ের একটি দল কেশবপুর উপজেলার গৌরিঘোনা ইউনিয়নের কাশিমপুর মৌজার ডালিঝাড়া ঢিবিতে খনন করে। 
খননের ফলে অলঙ্কৃত ইট, পোড়ামাটির ফলকের ভগ্নাংশ ও মৃৎপাত্রের ভগ্নাংশ পাওয়া গেছে। পোড়ামাটির ইট ও ফলকের ভগ্নাংশগুলোতে পদ্মফুল ও বিভিন্ন জ্যামিতিক নকশা আঁকা। এছাড়া চুন, সুরকি, বালি দিয়ে নির্মিত স্টাকো পাওয়া যায়। এগুলোতে বিভিন্ন ধরনের ফুল ও জ্যামিতিক নকশা রয়েছে। এখানে একটি বিশেষ ধরনের বাটি আকৃতির মৃৎপাত্র পাওয়া গেছে যা সাধারণত সপ্তম-একাদশ শতকের বৌদ্ধবিহারসহ অন্যান্য প্রত্নস্থানে পাওয়া যায়।

প্রাথমিকভাবে শনাক্তকরণ সহজ না হওয়ার কারণ হলো, বিহারটির স্থাপত্যিক পরিকল্পনায় অন্যান্য বিহারের চেয়ে ভিন্নতা রয়েছে। ভারতের পূর্বাঞ্চলে বিশেষ করে বর্তমান বিহার, উড়িষ্যা ও পশ্চিমবাংলায় আর বাংলাদেশে অদ্যাবধি যেসব বৌদ্ধবিহার বা মহাবিহার আবিষ্কৃত হয়েছে এবং বিভিন্ন গবেষণায় প্রকাশিত হয়েছে সেগুলোর সঙ্গে এই ভূমিপরিকল্পনার সাদৃশ্য ও বৈসাদৃশ্য রয়েছে।

বিশেষজ্ঞদের ধারণা, প্রত্নতাত্ত্বিক খননের ফলে পাওয়া এসব স্থাপনা নবম থেকে একাদশ শতকের মধ্যবর্তী সময়ের। বৌদ্ধবিহারের পূর্ব দিকে দুটি বৌদ্ধমন্দির এবং উত্তর, দক্ষিণ ও পশ্চিম দিকে টানা বারান্দা, ভেতর ও বাইরের দেয়ালসহ মোট ১৮টি কক্ষ রয়েছে। 

বাংলাদেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলসহ ভারতের পশ্চিমবাংলা সংলগ্ন দক্ষিণাঞ্চলে এমন স্থাপনা প্রথম আবিষ্কৃত হলো ।

-----------------------------------------

#RVApastoralcare 
#RadioVeritasAsia 
#BRBC
#Banideepti 
#ripontolentino

নিয়মিত আমাদের অনুষ্ঠান শুনতে আমাদের সাথেই থাকুন ভিজিট করুন আমাদের ওয়েবসাইট ।
https://bengali.rvasia.org/

এছাড়াও সকল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আমাদের সাথে যুক্ত হতে ভিজিট করুন ।
Facebook: http://facebook.com/veritasbangla
YouTube: http://youtube.com/veritasbangla
Twitter: https://twitter.com/banglaveritas
Instagram: http://instagram.com/veritasbangla
 

Add new comment

8 + 3 =