রাজশাহী ধর্মহাটা গির্জায় শ্রমিক সাধু যোসেফের পর্ব উদযাপন

ধর্মহাটা গির্জায় শ্রমিক সাধু যোসেফের পর্ব উদযাপন

গত ১ মে ২০২১ খ্রিস্টাব্দ,  রাজশাহী ক্যথিড্রাল ধর্মপল্লীর অধীনস্থ ধর্মহাটা গির্জায় অত্যন্ত ভাব গাম্ভির্যপূর্ণ ও উৎসবমুখরভাবে শ্রমিক সাধু যোসেফের পর্ব উদ্যাপন করা হয়।

এই পর্বের প্রস্তুতি স্বরূপ তিন দিনের বিশেষ নভেনা প্রার্থনা করা হয়। পর্বের দিন সকাল ১০:৩০ মিনিটে সাধু যোসেফের মূর্তি নিয়ে শোভাযাত্রা সহযোগে পবিত্র খ্রীষ্টযাগ শুরু করা হয়। পবিত্র খ্রীষ্টযাগে প্রধান পৌরহিত্য করেন পরম শ্রদ্ধেয় পাল-পুরোহিত ফাদার পল গমেজ।

ফাদার পল গমেজ তার উপদেশ সহভাগিতায়  বলেন, “আজ আমরা শ্রমিক সাধু যোসেফের পর্ব পালন করছি। ধর্মহাটা গির্জার নতুন নামকরন করা হয় এই শ্রমিক সাধু যোসেফের নাম অনুসারে, তাই এই গ্রামের জন্য এটা একটা বড় আশির্বাদ।”

তিনি আরো বলেন, “সাধু যোসেফ ঈশ্বরের পরিকল্পনা অনুসারে যীশুর পালক পিতা হবার দায়িত্ব পেয়েছিলেন। ঈশ্বরের প্রতি তাঁর নম্রতা ও বিশ্বস্থতার আদর্শ প্রকাশ করেছেন।  যদিও বাইবেলে সাধু যোসেফের বিষয়ে বেশি কিছু লেখা নেই কিন্তু তিনি ছিলেন একজন নিরব সাধক। তিনি নিরবতার মধ্য দিয়েই নিরলসভাবে কাজ করেছেন। তিনি সকল শ্রমিকদের ও প্রতিপালক। আমরা যেন তাঁর আদর্শ অনুসরণ করে নিজেকে মণ্ডলীর কাজে নিবেদন করতে পারি।”

এবছরটিকে সাধু যোসেফের বর্ষ হিসেবে ঘোষণা করা হয় তাই আমরা প্রত্যেকেই যেন সাধু যোসেফের গুণগুলো নিয়ে একটু ধ্যান করি ও নিজ জীবনে অনুশীলণ করতে পারি। একই ভাবে আজ শ্রমিক দিবসে আমাদের প্রতি আহ্বান হল আমরা যেন শ্রমিকদের কাজের মর্যাদা দেই ও শ্রমিকদের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হই।

ধর্মহাটা গ্রামের একজন খ্রীষ্টভক্ত বলেন, “আজকের এই পর্ব উদ্যাপন করতে পেরে আমরা খুবই আনন্দিত। আজকে সাধু যোসেফের পর্বদিনে আমরা সবাই প্রার্থনা করি যেন একজন খ্রিস্টবিশ্বাসী হিসাবে সাধু যোসেফের আদর্শ অনুসরণ করে ঈশ্বরের ইচ্ছা ও পরিকল্পনা নম্রতার সাথে গ্রহণ করি এবং আমাদের দায়িত্ব ও কর্তব্য যেন বিশ্বস্থতার সাথে পালন করতে পারি।”

এই পবীর্য় খ্রীষ্টযাগে প্রায় ২০০ খ্রীষ্টভক্ত খ্রীষ্টযাগে অংশগ্রহণ করেন। ধর্মহাটা গির্জার নতুন নামকরণের পর এই প্রথম বারের মত সাধু যোসেয়ের পর্ব পালন করা হয়।-ফাদার সুরেশ পিউরীফিকেশন

Add new comment

11 + 1 =