পোপ ফ্রান্সিসের “মতু প্রপ্রিও” প্রভুর আত্মা

পুণ্যপিতা পোপ ফ্রান্সিস “প্রভুর আত্মা” নামক মতু প্রপ্রিও প্রকাশ

কাথলিক মণ্ডলির আইন শাস্ত্রের ২৩০ § ১ নং ধারা পরিবর্তন করে মহিলাদের বাণীপাঠ (Lector) ও আলোক বাহিকার (Acolyte) সেবাকাজ প্রদান করার জন্য পুণ্যপিতা পোপ ফ্রান্সিস–“প্রভুর আত্মা” নামক মতু প্রপ্রিও প্রকাশ করেছেন।

প্রভু যীশুর আত্মা হলো খিস্টমণ্ডলির জীবন ও প্রেরণকার্যের চিরকালীন উৎস আর সেই আত্মাই ঐশজনগণের প্রত্যেকজনকে বিভিন্নভাবে বিশেষ শক্তিদান করে, যে শক্তি পেয়ে তারা খ্রিস্টমণ্ডলিকে গড়ে উঠতে এবং মঙ্গল সমাচার প্রচারকার্যে অবদান রাখতে পারে। মঙ্গল সমাচারের এই গুণগুলিকে, যেগুলিকে সেবাকাজরূপে প্রকাশ্যে দেখা যায়, মণ্ডলির দ্বারাই স্থাপিত হয়েছে যেন মাণ্ডলিক সমাজ ও তার প্রচারকার্যের মধ্যে তা স্থায়ী হয়ে থাকে।

কোন কোন সময় এই সেবাকাজের অবদানগুলি একটি বিশেষ সাক্রামেন্ত, অর্থাৎ যাজক বরণ সাক্রামেন্ত, এর মধ্য দিয়ে সম্পন্ন হয়ে থাকে। কিন্তু মণ্ডলির অন্যান্য সেবাকাজগুলি ঐতিহাসিকভাবে বরাবরই সাক্রামেন্ত বহির্ভুত উপাসনার মাধ্যমে খ্রিস্টভক্ত সদস্যদের প্রদান করা হয়ে থাকে; আর তা প্রদান করা হয় দীক্ষাস্নানের যাজকীয় সেবাকাজের জন্য এবং বিশপ, যাজক ও অনুযাজকদের উপাসনায় সহায়তা করার জন্য।

মণ্ডলির মর্যাদাপূর্ণ ঐতিহ্য অনুসরণ করে এই সেবাকাজগুলি যাজকবরণ সাক্রামেন্ত গ্রহণকারীদের প্রস্তুতি হিসাবে দেওয়া হতো; সাধু পোপ ৬ষ্ঠ পল তাঁর মতু প্রপ্রিও মিনিষ্টেরিয়া কোয়েদাম (১৭ আগষ্ট ১৯৭২) এর মাধ্যমে পুরুষ খ্রিস্টভক্তদের জন্য তা উন্মুক্ত করেছিলেন।

বিশপগণের বেশ কয়েকটি সিনড সভা এই বিষয়টির তত্ত্বগত দিকটি গভীর করে এমনভাবে বিবেচনা করার প্রয়োজন অনুধাবন করেছে – যার ফলে এই সেবাকাজগুলি মঙ্গলসমাচারের উপরোল্লিখিত গুনাবলীগুলি সময়ের দাবী পূরণ করে খ্রিস্টভক্তদের মণ্ডলিক দায়িত্ব পালন, অর্থাৎ মঙ্গল সমাচার প্রচারে অবদান রাখতে পারে।

এই সুপারিশগুলি গ্রহণ করে বিগত বছরগুলিতে মণ্ডলির এই তত্ত্বগত উন্নয়ন সংগঠিত হয়েছে, যার ভিত্তি হলো দীক্ষাস্নানের মাধ্যমে প্রাপ্ত যাজকীয় সেবাপদ। এই দায়িত্বগুলি অভিষেকের গুণে প্রাপ্ত সেবাকাজগুলি থেকে আলাদা।

লাটিন মণ্ডলির রীতি অনুসরণ করে, বস্তুত এই খ্রিস্টভক্তদের সেবাকাজগুলি উপযুক্ত বিশ্বাসীভক্ত, সে পুরুষই হোক বা নারীই হোক, সকলকেই পদান করা যায়; মাণ্ডলিক আইন ২৩০ § ২ ধারা তা পরোক্ষভাবে অনুমোদন করে কারণ এগুলির ভিত্তি হলো দীক্ষাস্নান সংস্কার।

এই জন্য আমি দায়িত্বপ্রাপ্ত দপ্তর ও ব্যক্তিবর্গের সাথে আলাপ আলোচনা করে আমি মাণ্ডলিক আইন ২৩০ § ১ ধারা পরিমার্জন করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছি। তাই আমি ঘোষণা করছি যে ভবিষ্যতে মাণ্ডলিক আইন ২৩০ § ২ ধারায় এই কথাগুলি যুক্ত হবে: “উপযুক্ত বয়সের যে কোন খ্রিস্টভক্ত কোন দেশের বিশপ সম্মিলনীর দ্বারা ঘোষিত নীতিমালা অনুসরণ করে অনুসরণ করে স্থায়ীভাবেই এই পদগুলি গ্রহণ করতে পারে। তবে এই কাজের জন্য তাঁরা কোন পরিতোষিক বা পারিশ্রমিক পাবেন না; এই কাজ সম্পূর্ণ অবৈতনিক।

তাই দৃঢ়ভাবে আমি এই আদেশ দিচ্ছি যে মতু প্রপ্রিও আকারে প্রকাশিত প্রৈরিতিক পত্রগুলির স্থির নিশ্চিত ফলপ্রসূতার জন্য, কোন কিছুর বৈপরিত্য অগ্রাহ্য করে হলেও, ল’জ্জারভেতরে রোমানো নামক পত্রিকায় যেন প্রকাশ করা হয়; আর তার পরে যেন ভাটিকানের সরকারি আক্টা আপস্টলিসে সেদিস নামক দলিলে লিপিবদ্ধ করা হয়।- পোপ ফ্রান্সিস, সাধু পিতরের মহা মন্দির, রোম নগরী থেকে ১০ই জানুয়ারি ২০২১ খ্রি: তারিখে প্রদত্ত। ভাষান্তর বিশপ জেভার্স রোজারিও

Add new comment

8 + 7 =