করোনাভাইরাসের টিকা নিলেন পোপ ও ব্রিটিশ রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথ

পোপ ফ্রান্সিস ও ব্রিটিশ রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথ

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের টিকা নিলেন পোপ ফ্রান্সিস ও ব্রিটিশ রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথ । এর মধ্য দিয়ে বিশ্বের হাইপ্রোফাইল ব্যক্তিদের টিকা নেওয়ার তালিকায় তাদের নাম যুক্ত হলো ।

এ ছাড়া রানীর স্বামী ডিউক অব এডিনবরা প্রিন্স ফিলিপও করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে টিকা নিয়েছেন।

এক রিপোর্টে জানা গেছে, এ পর্যন্ত জার্মানিতে করোনায় মৃত্যু ৪০ হাজার ছাড়িয়ে গেছে। করোনা পরিস্থিতি আরও খারাপ হবে বলে এর আগে জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মের্কেল সতর্ক করে বলেছিলেন।

করোনার বিস্তার রোধে গত ১৬ ডিসেম্বর থেকে ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত দেশটিতে কঠোর লকডাউনের বিধি জারি আছে। তবে তাতে করোনার বিস্তার থামছে না। এ পরিস্থিতিতে লকডাইনের মেয়াদ আরও বাড়ানোসহ কঠোর পদক্ষেপের কথা ভাবছেন তিনি।

এর আগে জনগণকে করোনার টিকা নেওয়ার আহ্বান জানিয়ে পোপ ফ্রান্সিস বলেছিলেন, আগামী সপ্তাহে টিকা দেওয়া শুরু হলেই তিনি তা গ্রহণ করবেন।

গতকাল চ্যানেল ৫-এ এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, টিকা না নেওয়াটা আত্মহত্যার শামিল হবে। বিষয়টি আমি ব্যাখ্যা করতে পারছি না, তবে আজ আমাদের টিকা নিতে হবে।

এদিকে, ব্রিটিশ রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথ ও তার স্বামী প্রিন্স ফিলিপ করোনাভাইরাস সংক্রমণ ঠেকাতে টিকা নিয়েছেন। স্থানীয় সময় গত শনিবার তাদের টিকার প্রথম ডোজ দেওয়া হয়। বাকিংহাম প্যালেস বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

তাদের পারিবারিক ডাক্তারের মাধ্যমেই তারা টিকা গ্রহণ করেছেন বলে ব্রিটিশ রাজপরিবার সূত্রে জানা গেছে। সাধারণত রাজপরিবারের স্বাস্থ্যবিষয়ক খবর বাইরে প্রকাশ করা হয় না। তবে গুজব ঠেকাতে এবার রানী নিজেই চেয়েছেন তাদের টিকা গ্রহণের বিষয়টি যেন বাইরে প্রচার পায়।

৯৪ বছর বয়সী রানী ও ৯৯ বছর বয়সী প্রিন্স ফিলিপসহ যুক্তরাজ্যে এখন পর্যন্ত প্রায় ১৫ লাখ মানুষকে করোনার টিকার অন্তত একটি ডোজ দেওয়া হয়েছে।

যুক্তরাজ্যে ৮০ বছরের বেশি বয়সীদের অগ্রাধিকার ভিত্তিতে আগে টিকা দেওয়া হচ্ছে।- খবর এএফপির।

Add new comment

6 + 0 =