অনু‌প্রেরণার গল্প

অনু‌প্রেরণার গল্পঃ আমরা যার গল্প শুনব তি‌নি হ‌লেন সানজানা শি‌রিন। সানজানা শি‌রিন সি‌লে‌টের মৌলভী বাজা‌রের এক‌টি হাসপা‌তা‌লে চাকু‌রি ক‌রেন। সামান্য বেতন সীমাবদ্ধতার অন্ত নেই। তি‌নি মানু‌ষের ও সমা‌জের সেবা কর‌তে চান। পাহা‌ড়ি রাস্তা। চলাচ‌লের জন্য কোন সাই‌কেল নেই। কিনার সামর্থ ও নেই। তাই  এক শিক্ষ‌কের স‌ঙ্গে আলাপ কর‌লেন। শিক্ষক তা‌কে সাই‌কেল কি‌নে দি‌লেন। তি‌নি ধী‌রে ধী‌রে প‌রিশোধ ক‌রে দিলেন। সানজানা নি‌জে রক্ত দি‌তে ভালবা‌সেন এবং অন্য‌দের উৎসা‌হিত ক‌রে থা‌কেন। এভা‌বেই  জনগ‌ণের বন্ধু হ‌য়ে উ‌ঠে‌ছেন। এ পযর্ন্ত ৫ হাজার লোক‌দের রক্ত সংগ্রহ ক‌রে দি‌তে সহ‌যোগীতা ক‌রেছেন। ৪৩৯ ম‌হিলার স্বাভা‌বিক ডে‌লি‌ভে‌রি করা‌তে সহ‌যোগীতা ক‌রে‌ছেন। এর ম‌ধ্যে ৬ জোড়া যমজ সন্তান ও র‌য়ে‌ছে। এত অল্প বয়‌সে এ কাজ করছেন,  তাই সমা‌লোচনাও শুন‌ছেন। কিন্তু স‌ানজানা কোন গুরুত্ব দেন না। ভে‌লি‌ভে‌রির আগে ক‌য়েক জ‌নের কাছ‌ে জোন‌তে চে‌য়ে‌ছি‌লেন কি খে‌তে চান। তা‌দের সেই ইচ্ছাগু‌লো ও তি‌নি পুরুন ক‌রেছেন। তাঁর যা অা‌ছে তা দি‌য়েই  সবার সেবা ক‌রে চল‌ছেন।

Add new comment

7 + 6 =