পোপ ফ্রান্সিসের বার্তা

পোপ ফ্রান্সিস অনলাইনে মানুষের মর্যাদা রক্ষার জন্য কাথলিক আইন প্রনেতাদের আহ্বান জানান।

ভ্যাটিকান সংবাদ মাধ্যম সূত্রে খবর ২৭ আগস্ট ২০২১ভ্যাটিকানের ক্রেমেণ্টাইন হলে ইন্টারন্যাশনাল ক্যাথলিক লেজিসলেটরস্ নেটওয়ার্ক অর্থাৎ বিশ্বজোড়া ক্যাথলিক পার্লামেন্টারিয়ানদের বার্ষিক  জনসভায়   উপস্থিত আইন প্রণেতাদের  বিশেষ আর্জি  জানিয়ে পুণ্যপিতা পোপ ফ্রান্সিস বলেন তারা যেন   জন নীতি ব্যবহার করে , অনলাইনে শিশু অশ্লীলতা, ডেটা লঙ্ঘন, সাইবার হামলার মোকাবিলা করে মানুষের মর্যাদা রক্ষা করতে সচেষ্ট হন।

তিনি বলেন এ যুগের আমাদের সামনে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ হল, আধুনিক প্রযুক্তি প্রশাসন কে কিভাবে মানুষের কল্যাণে কাজে লাগানো যায়।
নীতি ও সংবিধানের মাধ্যমে মানুষের মর্যাদা রক্ষায় যা আশঙ্কার কারণ হয়,তা থেকে মানুষকে রক্ষা করতে পারে। উদাহরণ স্বরূপ তিনি বলেন , শিশু পর্ণোগ্রাফির দুর্যোগ,ব্যক্তিগত তথ্যের অপব্যবহার, হাসপাতালের মত গুরুত্বপূর্ণ পরিকাঠামোর উপর  আক্রমণ ও সোস্যাল মিডিয়ায় মিথ্যা তথ্য সম্প্রচার ইত্যাদি খুবই  চিন্তার বিষয়।

তিনি বলেন, "আধুনিক বিজ্ঞান ও  বিস্ময়কর প্রযুক্তিবিদ্যা  আমাদের জীবন যাত্রার মান উন্নয়নে তেমন একদিকে সাহায্য করেছে  তেমনি  এক ই সময়ে তেমনি আমাদের বাজারি শক্তির উপর নির্ভরশীল করে তুলেছে। আইনী পরিষদ এবং
সরকারি কতৃপক্ষের সামাজিক দায়বদ্ধতা  দ্বারা
পরিচালিত  উপযুক্ত নির্দেশিকা ছাড়া এই প্রযুক্তি গুলি মানুষের ব্যক্তিগত মর্যাদা্র জন্য  হুমকি হয়ে উঠতে পারে ‌"।

ইন্টারন্যাশনাল ক্যাথলিক লেজিসলটরস নেটওয়ার্কে কথা বলার সময় পোপ মহোদয় রাজনীতিবিদদের উদ্দেশ্য করে  বৈজ্ঞানিক ও প্রযুক্তিগত অগ্রগতির সাথে যুক্ত ঝুঁকি ও নানা গুরুতর সম্ভাবনার কথা উল্লেখ করেন । বিষয় গুলি তে গভীর ভাবে তারা যেন নৈতিক প্রতিফলন ঘটাতে যথাসাধ্য সাহায্য করে তার জন্য উৎসাহিত করেছিলেন।

যে আইন এবং বিধিগুলি প্রযুক্তির প্রতি নৈতিক প্রতিফলন নিশ্চিত করতে সাহায্য করবে এবং অগ্রগতির  পরিবর্তে  অবিচ্ছেদ্য মানব বিকাশকে উৎসাহিত করার বিষয়ে মনোনিবেশ করবে সেই গুলি কার্যকরী করার জন্য তাদের  সচেষ্ট হতে হবে।

ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই বা মহামারীর আগের  স্থিতাবস্থা ফিরিয়ে আনার জন্য যে চ্যালেঞ্জ  তার চেয়ে  আরো গভীর তর সঙ্কট  হল মানব মর্যাদা সুরক্ষিত করা।
শ্রীমতী চন্দনা রোজারীওর প্রতিবেদন।

 

Add new comment

1 + 7 =